মন্ত্রী-এমপিদের অঙ্ক শেখাতে বিশেষ কোচিং নেয়া দরকার


গতকালের পত্রিকার সংবাদ থেকে উপরের শিরোণামটি আমার মাথায় এসেছে। আমি মাননীয় স্পিকার বরাবর আবেদন জানাতে চাই তিনি যেন মন্ত্রী-এমপিদের অঙ্ক শেখানোর বিশেষ কোচিং নেয়ার ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। কেন এই আবেদন সেকথা বলার আগে স্বীকার করতে হবে যে, সংসদীয় রীতি-নীতি সম্পর্কে আমার ধারণা টেলিভিশনে সংসদীয় অধিবেশন দেখা পর্যন্ত। দেশের সাধারণ মানুষ হিসেবে সংসদের অভিভাবক স্পিকার বরাবর আবেদন জানানোর সুযোগ আছে কিনা জানিনা। অজ্ঞতাহেতু ভুল করলে স্পিকার বরাবর আগেভাগে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।

আমার প্রস্তাবনার কারণ আগেই বলেছি একটি সংবাদ। সংবাদে বলা হয়েছে: জাতীয় সংসদে খাদ্য ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনামন্ত্রী জানিয়েছেন ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকায় তিন লাখ ২৬ হাজার দালানের উপর সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে, ৭ থেকে সাড়ে ৭ মাত্রার ভূমিকম্প হলে রাজধানীর প্রায় ৭২ হাজার দালান সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে যাবে। আর এতে ৯০ হাজার মানুষ হতাহত হবে, যদি ভূমিকম্প হয় রাতের বেলায় আর দিনের বেলায় ভূমিকম্প হলে ৭০ হাজার মানুষ মারা যাবে। আরও ৮৫ হাজার ভবনে মাঝারি ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হবে। শুধু ভবন ভাঙার কারণে ক্ষয়ক্ষতি হবে ৬ বিলিয়ন ডলারের সমতুল্য। (দৈনিক প্রথম আলো, ২৯ জুন ২০১০)।

এখন প্রশ্ন হলো উল্লেখিত খবরটি পড়ে কেন আমার মনে হলো মন্ত্রী-এমপিদের অঙ্ক শেখাতে বিশেষ কোচিং নেয়া দরকার? মাননীয় স্পিকার আমি আমার প্রস্তাবনার সপক্ষে যুক্তি দিচ্ছি।

  • বলা হয়েছে ৭২ হাজার দালান সম্পূর্ণ ধ্বংস হবে। এগুলো কত তলা দালান বলা হয়নি। ঢাকা শহরের দালান যেহেতু সেহেতু এগুলোর মধ্যে একতলা হওয়ার সম্ভাবনা কম। তারপরও যদি ধরে নেই একতলা দালান। প্রতিটি দালানে চারজনের একটি পরিবার বসবাস করে সেক্ষেত্রে রাতের ভূমিকম্পে যখন দালানগুলো সম্পূর্ণ ধ্বংস হবে তখন ৭২০০০*৪=২,৮৮,০০০ জন মারা যাবে (যদি সবাই মারা যায়)। কিন্তু ঢাকা শহরের বেশিরভাগ আবাসিক এলাকার দালানগুলো এখন গড়ে ছয় তলা। প্রতিটিতে কমপক্ষে ১০টি ফ্ল্যাট। নিচে গাড়ি পার্কিং। একএকটি ফ্ল্যাটে গড়ে ৫ জন করে বসবাস করে। তাহলে ৭২০০০ দালানে ৭,২০,০০০ ফ্ল্যাটে ৩৬ লাখ মানুষ বাস করছে। যা ৯০ হাজারের চেয়ে ৪০ গুণ বেশি।
  • মন্ত্রী বলেছেন রাতে ভূমিকম্প হলে মারা যাবে ৯০ হাজার আর দিনে হলে ৭০ হাজার। এর যুক্তিটি কি? ৭২ হাজার দালানে একজন করেও যদি দিনের বেলায় অবস্থান করে তাহলে সম্পূর্ণ ধ্বংস হওয়া ৭২ হাজার দালানে ৭২ হাজার জন মারা যাওয়ার কথা।
  • ভবনগুলোর ক্ষয়ক্ষতি হবে বলেছেন ৬ বিলিয়ন ডলার অর্থাৎ ৪২ ‍হাজার কোটি টাকা। বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস হবে বলেছেন ৭২০০০ আর মাঝারি ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হবে বলেছেন ৮৫ হাজার। ৭২০০০ বাড়ির জন্য ৪২ হাজার কোটি টাকা ক্ষয়ক্ষতি হলে তিনি প্রতিটি বাড়ির নির্মাণ ব্যয় ধরেছেন প্রায় ৫৮ লাখ টাকা। অন্যদিকে, ৮৫,০০০ সহ ১,৫৭,০০০ বাড়ি হিসেবে নিলে প্রতিটি বাড়ির জন্য ক্ষতির পরিমাণ দাড়ায় প্রায় ২৬ লাখ টাকা। দুটো হিসাবই বাস্তবতা বর্জিত।

এই অবস্থার প্রেক্ষিতে মাননীয় স্পিকার, আপনার মাধ্যমে সবিনয়ে বলতে চাই যে এই ধরনের সামান্য অঙ্ক জ্ঞানের অভাব খুবই পীড়াদায়ক। এ ব্যাপারে আপনার আশু দৃষ্টি কামনা করছি। কারণ আপনি নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন, এই ধরনের অঙ্ক জ্ঞান থাকার ফলেই দেশের কোন সমস্যাকেই তারা সঠিকভাবে নিরূপণ করতে পারে না। দেশ পরিচালনার জন্য পঞ্চম শ্রেণীর সমমানের অঙ্ক জ্ঞান থাকা এমপিদের জন্য বাধ্যতামূলক করার প্রস্তাব দিচ্ছি।

Advertisements

2 thoughts on “মন্ত্রী-এমপিদের অঙ্ক শেখাতে বিশেষ কোচিং নেয়া দরকার

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s