বিখ্যাতদের ধর্ষণ, ক্ষমালাভের সূত্র এবং বাংলাদেশের আইন


বিখ্যাত  পুরুষদের ধর্ষণের ঘটনায় সর্বশেষ সংযোজন আইএমএফ প্রধান দমিনিক স্ত্রস কান৷ বেশ কিছুদিন ধরে পত্র-পত্রিকায় ও টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে তার কাহিনী প্রচারিত হওয়ায়, বিষয়টি সবাই জানেন৷ সংবাদটি আমাকে উদ্বুদ্ধ করেছে ইন্টারনেটে বিখ্যাত ব্যক্তিদের ধর্ষণ সম্পর্কে জানতে৷ খুঁজতে গিয়ে আমি জানলাম যে, বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, লেখক ও অভিনেতা রোমান পোলানস্কি ১৩ বছরের এক মেয়েকে ধর্ষণ করেছিলেন এবং সেই ধর্ষণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক অধ্যাপক রীতিমতো একটি সূত্র আবিষ্কার করে তার ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন যেখানে তিনি শ্লেষাত্মকভাবে বলেছেন যে, পোলানস্কি আরো ধর্ষণের ঘটনায় আগাম ক্ষমালাভ করতে পারেন৷

ক্ষমালাভের সূত্র

দি ট্যালেন্ট শো ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজির অধ্যাপক গ্রেগ স্যান্ডারস ‘ফরগিভনেসকোশেন্ট’ (FQ) সূত্রটা তৈরি কনে৷ সূত্রটি হলো:  FQ = 1/(KCR = (d*g)/s^v ) * (TI = (10m + 25(6-h))/a)

এখানে, কেসিআর (KCR) হলো ঘটনা সংঘটিত হওয়ার পর কত দশক পার হয়েছে;

ডি (d) হলো ঘটনা সংঘটিত হওয়ার সময়কাল;

জি (g) হলো শিল্পীর সৃজনশীল কাজের নম্বর;

এস (s) হলো অপরাধের মাত্রার গভীরতা;

ভি (v) হলো ঘটনার শিকার ব্যক্তির সংখ্যা;

টিআই (TI) হলো ট্রাজেডি ইনডেক্স অর্থাত্ অপরাধীর পরিবার কোন মর্মান্তিক ঘটনার শিকার হয়েছেন কিনা এবং সেই ঘটনায় তার কতোজন আত্মীয়-স্বজন হত্যার শিকার হয়েছেন, এই সংখ্যাকে ১০ দ্বারা গুণ করা এবং এইচ (h) দ্বারা বোঝানো হচ্ছে হিটলার৷ হিটলার থেকে শিল্পীর দূরত্ব যাকে ভাগ করা হচ্ছে তার বর্তমান বয়স দ্বারা (a)

পোলানস্কির ক্ষেত্রে সূত্রটি হলো৷ যেহেতু ঘটনাটি প্রকাশ পেয়েছে ৩১ বছর পরে সেকারণে, d= ৩.১

পোলানস্কি ওই ঘটনার পর ৯টি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন৷ এর মধ্যে পিয়ানিস্টের জন্য তাকে ১০ পয়েন্ট এবং বাকি প্রতিটি চলচ্চিত্রের জন্য ১ পয়েন্ট করে দিলে, g= ১৮

তার অপরাধের মাত্রা যদি ১-১০০ স্কেলে গণনার মাধ্যমে ধর্ষণ করেছে কিন্তু খুন করেনি বিধায় অপরাধের স্কেলে ৭৫ ধরা হয় তাহলে মেয়েটির সঙ্গে জোরজবরদস্তি করার জন্য আরো ১০ ধরতে হবে৷ তাহলে s=৮৫৷ সে একজনকে ধর্ষণ করেছে বিধায় v=১

তাহলে, S^V = ৮৫

এর মানে হলো পোলনস্কির কারমিক ক্রেডিট রেটিং হলো ১.৫৪৷

এখন দেখুন যে, পোলানস্কি স্ত্রী গর্ভবতী অবস্থায় খুনের শিকার হয় এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে কমপক্ষে ৯ জন আত্মীয়কে হারিয়েছে৷ তারমানে সে ১১ জন আত্মীয়কে হারিয়েছে৷ তাহলে: ১১m = ১১০

পোলানস্কি একজন ইহুদি যিনি গ্যাস চেম্বার থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন৷ ধরে নিতে পারি যে হিটলার থেকে তার দূরত্ব ছিল ২৷ তাহলে ৬  থেকে ২ বাদ দিলে থাকে ৪৷ তাহলে, ২৫(৬-h) = ২৫() = ১০০

পোলনস্কির বয়স ৭৬৷ তারমানে তার ট্রাজেডি ইনডেক্স হলো ২.৭৬

এখন এই মানগুলো সূত্রে বসালে পরে দেখা যায় পোলনস্কির ফরগিভনেস কোশেন্ট হলো ৪.২৩৷ তারমানে সে আরো ৩.২৩ টি ধর্ষণ করতে পারে৷

ধর্ষণ বাংলাদেশের আইন

পোলনস্কির মতো অনেক বিখ্যাত লোকই ধর্ষণ করেছেন বলে ইন্টারনেটের তথ্যে পেলাম৷ শিশু নির্যাতনের অভিযোগ আছে মাইকেল জ্যাকসনের বিরুদ্ধে৷ কথিত আছে মহাত্ম গান্ধীও ১৮ বছরের কম বয়সীদের শয্যায় নিয়েছেন৷ সেদিক থেকে বিল ক্লিনটন কিছুটা মানুষের পরিচয় দিয়েছেন, তিনি শিশু ধর্ষণ করেননি৷ বাংলাদেশের অনেক বিখ্যাত ব্য িক্তর ধর্ষণের কানকথা শোনা যায়৷ ক্ষমালাভের সূত্র যাই বলুক আইনের চোখে কিন্তু একজন ধর্ষণকারী তার সামাজিক পরিচয় দ্বারা রক্ষা পাবেন না৷ তাই আমাদের দেশের আইনে ধর্ষণের শা িস্ত সম্পর্কে কি বিধান রয়েছে আসুন জেনে নেই৷

সাবেক প্রধান বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান সংকলিত আইন শব্দকোষে ধর্ষণ সম্পর্কে লেখা হয়েছে: “কোনোপুরুষ কর্তৃক কোনো নারীর সহিত তাঁহার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ও অমতে বলপ্রয়োগে বা ভীতিপ্রদর্শন করিয়া বা শঠতাপ্রয়োগে সম্মতি আদায় করিয়া বা তাঁহার অজ্ঞান বা ঘুমন্ত অবস্থায় যৌনসঙ্গম করা৷”

ধর্ষণের ক্ষেত্রে দণ্ডবিধির ৩৭৫ ধারা অনুসারে বলা হয়েছে যখন কোন ব্য িক্ত নিচে উল্লেখিত পাঁচটি অবস্থার যেকোনো অবস্থাতে কোনো নারীর সহিত যৌনসঙ্গম করে সেই ব্যক্তি নারী ধর্ষণ করেছে বলে গণ্য হবে৷ ৫টি ক্ষেত্র হলো সংশ্লিষ্ট নারীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে; নারীর সম্মতি ছাড়া; নারীর সম্মতিক্রমে, কিন্তু যে সম্মতি তাকে ভয় দেখিয়ে আদায় করা হয়; নারীর সম্মতিক্রমে কিন্তু যেক্ষেত্রে লোকটি জানেন যে তিনি তাঁহার স্বামী নন, এবং ওই নারী এই বিশ্বাসে সম্মতিদান করেন যে, পুরুষটি এমন কোনো ব্যক্তি যাঁহার সহিত তিনি আইনানুগভাবে বিবাহিত অথবা তিনি নিজেকে তাঁহার সহিত আইনানুগভাবে বিবাহিত বলিয়া বিশ্বাস করেন; এবং সম্মতিসহকারে কিংবা সম্মতিছাড়া সহবাস, যেক্ষেত্রে নারীর বয়স ১৪ বছরের কম৷

দণ্ডবিধির এই ধারা অনুসারে ১৬ বত্সরের কম বয়স্ক নারীর সহিত তাহার সম্মতি সহাকারে যৌনসঙ্গম করা বা ১৫ বত্সরের কমবয়স্ক নিজের স্ত্রীর সহিত যৌনসঙ্গম করাও ধর্ষণ বা বলাত্কার৷ বাংলাদেশের দণ্ডবিধির ৩৭৬ ধারার বিধান-অনুযায়ী কোনো নারীকে ধর্ষণ করা দণ্ডনীয় অপরাধ৷ দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারার বিধান অনুযায়ী কোনো পুরুষ বা নারীর সহিত পায়ুকামও শাস্তিযোগ্য অপরাধ৷

এছাড়াও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) আইন ২০০৩ অনুসারে “যদিকোন পুরুষ কোন নারী বা শিশুকে ধর্ষণ করে, তাহলে তিনি যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় হবেন এবং ইহার অতিরিক্ত অর্থদণ্ডেও দণ্ডনীয় হবেন৷” এই আইনের ৯ ধারায় আরো বলা হয়েছে যে, “যদিকোন ব্যক্তি কর্তৃক ধর্ষণ বা উক্ত ধর্ষণ পরবর্তী তার অন্যবিধ কার্যকলাপের ফলে ধর্ষিতা নারী বা শিশুর মৃত্যু ঘটে, তাহলে উক্ত ব্যক্তি মৃত্যুদণ্ডে বা যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় হবেন এবং ইহার অতিরিক্ত অন্যুন এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডেও দণ্ডনীয় হবেন৷” শুধু তাই নয়, গণধর্ষণের ক্ষেত্রে প্রত্যেক ব্যক্তির একই ধরনের শাস্তি হবে৷ এমনকি ধর্ষণের চেষ্টাকারীর অনধিক দশ বছর কিন্তু অন্যুন পাঁচ বত্সর সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় হবেন এবং অর্থদণ্ডও তাকে দিতে হবে৷

আসুন, সোচ্চার হই

উইকিপিডিয়াতে লেখা হয়েছে যে, বিশ্বের ৯৫ ভাগ ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষনকারীর শাস্তি হয় না বিচার ব্যবস্থার দুর্বলতা এবং পক্ষপাতিত্বের কারণে৷ এটা নিঃসন্দেহে উদ্বেগের বিষয়৷ আমরা লক্ষ্য করছি, আমাদের দেশের বিচার ব্যবস্থার দুর্বলতা নিয়ে যথেষ্ট আলোচনা হচ্ছে৷ এই অবস্থায় এই দেশে ধর্ষণকারীর শাস্তি নিশ্চিত করার ব্যাপারটা যেন চলচ্চিত্রকার পোলন িস্কর জন্য তৈরি করা ক্ষমালাভের সূত্রের মতো না হয়ে যায় সেদিকে আমাদের সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে৷ নারীর মর্যাদার জন্য আমাদেরকে আরো বেশি সোচ্চার হতে হবে৷ আমাদের সংবিধানে নারীর মর্যাদা বিভিন্ন অনুচ্ছেদে বারবার তুলে ধরা হয়েছে৷ অনুচ্ছেদ ২৭ এ বলা হয়েছে: “সকল নাগরিক আইনের দৃষ্টিতে সমান এবং আইনের সমান আশ্রয় লাভের অধিকারী৷”

আসুন আমরা আইনকে তার নিজস্ব গতিতে চলতে সাহায্য করি এবং ধর্ষণের বিরুদ্ধে ও ধর্ষণকারীদের শাস্তির ব্যাপারে সোচ্চার হই৷

Advertisements

2 thoughts on “বিখ্যাতদের ধর্ষণ, ক্ষমালাভের সূত্র এবং বাংলাদেশের আইন

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s