সেক্স: সম্ভব কীভাবে


তিন রুমে চারটি পরিবার। তিন জোড়া স্বামী স্ত্রী এবং একজন ব্যাচেলর। তিন ছেলে নিয়ে বুড়ো বুড়ির সংসার। বড় দুই ছেলের সংসারে ছেলেমেয়েও আছে। ছোট ছেলেটার বিয়ের বয়স হয়েছে। যেকোন সময় বিয়ে হবে তার। আপাতত বুড়ো বুড়ির সঙ্গে ছোট ছেলেটা রুম ভাগাভাগি করে থাকে। এটাই বাড়ির মধ্যে সবচেয়ে বড় ঘর। সেকারণে খাওয়া দাওয়াও এই ঘরেই হয়। এরকম একটি ঠাসাঠাসি ঘরের মধ্যে কি করে স্বাভাবিক যৌন জীবন হতে পারে সেটা একটা বড় ধরনের বিষ্ময়। কিন্তু যারা এখানে বাস করেন তারা বরং আমার প্রশ্নটিকেই বড় ধরনের আহাম্মকি মনে করেছেন, যদিও মুখে বলেননি!

দুই.

রাস্তার ধারে পলিথিনের মধ্যে যে মানুষগুলো থাকে ওরকম একটি পরিবারের যৌন জীবন সম্পর্কে জানার আগ্রহ নিয়ে আলাপ করতে গিয়ে জেনেছি- ফাঁকে ফুঁকে সেরে নেয়। কারো যৌন জীবন সম্পর্কে আলাপ করাটা খুব সেনসেটিভ বিষয়। অত্যন্ত সাবধানে করতে হয়। তবে আলাপ করতে গিয়ে বুঝেছি বিষয়টিকে আলাপ শুরুর আগে আমি যতোটা সেনসেটিভ ভেবেছি আদতে তা নয়। সেলিব্রেটিদের জীবনে সেক্স যেমন খুব সাধারণ বিষয় অতি দরিদ্র মানুষের কাছেও এটা তেমন একটা লুকোচুরির বিষয় নয়।

তিন.

নয় মাস লাল গোলাপ অনুষ্ঠান করার সুবাদে বাংলাদেশ টেলিভিশনে যাতায়াত ছিল সপ্তাহে তিন দিন। একদিন অনুষ্ঠান রেকর্ডিংয়ে যেতাম এবং অন্য দুইদিন এডিটিং করার কাজে। সেসময়ে প্রযোজক ও কলা কুশলীদের নিয়ে অনেক কিছু শুনেছি। যেমন, প্রযোজকদের রুমে একসময় একজন করে বসত পরবর্তীতে রুম প্রতি দুইজন করে দেওয়া হয় যাতে করে রুমটা বেডরুমে পরিণত না হয়। কিন্তু তাতে যে ঘটনা বন্ধ হয়েছে সেটা কেউ হলফ করে বলতে পারেনি। কিন্তু প্রশ্ন হলো ভালোবাসাবিহীন যে সেক্স প্রযোজকের রুমে ঘটে তার অবস্থা তো রাস্তার ধারে নিরূপায় পরিবারের সেক্সের চেয়েও প্রশ্নবোধক নয়কি? কীভাবে সম্ভব?

চার.

একবার একজন বলেছিল, সেলিব্রেটিরা তাও না হয় জৌলুসের লোভে, খ্যাতির জন্য সেক্স করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক যখন পরীক্ষার নাম্বার আটকিয়ে সেক্স করতে বাধ্য করেন সেটাকে আমি তাহলে কি বলব? আমার কিছু বলার নেই। আমার এক বন্ধুর গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে দুই কর্মী বাথরুমে হাতে নাতে ধরা পড়েছিল। দু’জনেই বিবাহিত। আবার মেয়েটির স্বামী ওই গার্মেন্টেসে কর্মরত। মেয়েটি বলেছিল আমাকে চাকরি থেকে বিদায় করে দেন তাও আমার স্বামীকে বলবেন না। আমার মনে হয়েছে কিভাবে সম্ভব?

পাঁচ.

আমি তখন ভিএইচএসএস-এ কাজ করি। আমার এক সহকর্মী ছিলেন ডাঃ গিয়াস। এখন সম্ভবত আমেরিকায়। তিনি এইচআইভি এইডস টিমে কাজ করতেন। ফলে তাকে প্রায়শ দৌলদিয়া ও কখনো কখনো বাণী শান্তায় যেতে হতো। ওখানে সেক্স অনেকটাই আমার বলা প্রথম ঘটনার মতো। সবাই জানে এখানে কি হচ্ছে। শিৎকার, চিৎকার, চেচামেচি সবই ওখানে স্বাভাবিক। কাউকে অবদমন করতে হয় না। ভাবতে হয় না পাশের ঘর থেকে কেউ শুনলো কিনা। ঘরের মধ্যে থাকা শিশুটা জেগে উঠলো কিনা। পলিথিন সরিয়ে কেউ দেখে ফেললো কিনা। কিংবা ছাত্ররা জেনে গিয়ে পেটাবে কিনা!

ছয়.

যৌন জীবন পৃথিবী ও সভ্যতার জন্য একটি দরকারি বিষয়। কিন্তু নানান কারণে এই জীবন ব্যাহত হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপকভাবে কাজ করা দরকার।

পরের কিস্তি: বিবাহিত জীবনে সেক্সের ভূমিকা কমে যাচ্ছে

Advertisements

4 thoughts on “সেক্স: সম্ভব কীভাবে

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s