রোকেয়া বাহিনী: অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে নব জাগরণ


বাংলাদেশের গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকান্ড নতুন ঘটনা নয়। কিন্তু তাজরিন ফ্যাশনের অগ্নিকাণ্ড ঘটনার মতো ঘটনা অতীতে ঘটেনি। মানুষ স্তম্ভিত। বাকরুদ্ধ। ঘটনার পর পর মনে হয়েছিল এই দেশের মানুষ এইবার শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকারের পক্ষে গর্জে উঠবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাজরিন ফ্যাশনের অগ্নিকান্ডের ঘটনা অন্য দশটা ঘটনার মতোই চাপা পড়ে যেতে শুরু করল। সবাই মেনে নিলেও এই বিস্মৃতিকে মেনে নিতে পারেনি কয়েকটি তরুণ প্রাণ। তারা গঠন করলো রোকেয়া বাহিনী। আমি তাদের একজনের সঙ্গে কথা বলেছি। তার সঙ্গে আলাপচারিতা থেকে জানতে পারলাম-

রোকেয়া বাহিনী তৈরির চিন্তা কিভাবে মাথায় এলো?

তাজরিনের ঘটনার পর থেকে আমরা চাচ্ছিলাম, প্রতিবাদ জারি থাকুক। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসেনি। বামরাও না। একটা শাহবাগে অনুষ্ঠান করেই শেষ। এরপর আমরা কয়েকজন ঠিক করি, আমরা কাউকেই তাজরিন ভুলতে দিব না। ভুলতে না দেওয়ার জায়গা থেকেই রোকেয়াবাহিনী।

নামটা বেছে নেয়ার পেছনে কোন কারণ আছে কি?

বেগম রোকেয়ার অনুসারী হিসেবে আমরা রোকেয়াবাহিনী। আমাদের মনে হয় বেগম রোকেয়া থাকলে এখন যা করতেন আমরা সেটাই করছি।

এই বাহিনীর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যগুলো কি?

এই বাহিনীর গঠন থেকেই এর লক্ষ উদ্দেশ্য জানা যায়। আমরা এধরনের হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই, আর একটা ঘটনা দিয়ে আরেকটা ঘটনা বন্ধ করে দেওয়া, বিস্মৃতি ঘটানো দেখতে চাই না।

রোকেয়া বাহিনীর সদস্যরা কি সবাই নারী?

অবশ্যই নারী, তবে সহযোদ্ধা হিসেবে পুরুষ আছেন, যাকে বলে ওয়েলউইশার।

আমি আরো জানতে চেয়েছিলাম, রোকেয়া বাহিনীর সদস্য হওয়ার নিয়মাবলী ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা। কিন্তু এখনই এ ব্যাপারে মন্তব্য করতে তিনি রাজী হননি। তাছাড়া তিনি রোকেয়া বাহিনীর মুখপাত্রও নন।

রোকেয়া বাহিনীর কর্মকান্ড ইতোমধ্যে অনেকের নজর কেড়েছে। প্রতিবাদের অভিনবত্বই তাদেরকে আলোচনায় নিয়ে এসেছে। কাফনের কাপড় পড়ে হাটা কিংবা বিজিএমইএ ভবনে স্বজন হারানোদের রেকর্ড করা বিলাপ বাজিয়ে শোনানো কিংবা সর্বশেষ ক্রিসমাসের উৎসবে হোটেল সোনারগাঁওয়ে ঝটিকা প্রতিবাদ অভিযান বাংলাদেশের চিরায়ত প্রতিবাদের ভাষাগুলোর চেয়ে ভিন্ন কিছু হিসেবে মানুষের আলোচনায় জায়গা করে নিয়েছে। তরুণ প্রাণে নব জাগরণের পদধ্বনি শোনা যাচ্ছে।

অধিকার প্রতিষ্ঠার নতুন এই লড়াইয়ের সাফল্য কামনা করি।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s