সোনালী ব্যাংক ডাকাতিতে জার্মান স্টাইল : গোয়েন্দা ও পুলিশের সুখের দিন শেষ!


ছবির ব্যাংকটিতে ডাকাতির জন্য খোড়া সুড়ঙ্গ। এটি জার্মানীর ব্যাংক। একই কায়দায় ১০০ ফুট সুড়ঙ্গ কেটে কিশোরগঞ্জের সোনালী ব্যাংক থেকে লুট করা হয়েছে প্রায় ১৭ কোটি টাকা।

ছবির ব্যাংকটিতে ডাকাতির জন্য খোড়া সুড়ঙ্গ। এটি জার্মানীর ব্যাংক। একই কায়দায় ১০০ ফুট সুড়ঙ্গ কেটে কিশোরগঞ্জের সোনালী ব্যাংক থেকে লুট করা হয়েছে প্রায় ১৭ কোটি টাকা।

১. গত বছর জানুয়ারিতে জার্মানীর বার্লিনে ১০০ ফুট সুড়ঙ্গ খুড়ে ব্যাংক ডাকাতি করেছিল ডাকাতেরা (http://www.inquisitr.com/480574/robbers-dig-100-foot-tunnel-to-rob-bank-in-germany/)। বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জের সোনালী ব্যাংক ডাকাতি হলো একই কায়দায়! তবে সুদূর জার্মানী থেকে ডাকাত দল এসেছে কিনা কিংবা জার্মানীর প্রশিক্ষণ পেয়েছে কিনা সেটা জানা যায়নি। সেটাই গোয়েন্দা পুলিশের কাজ। আমাদের দেশের গোয়েন্দা ও পুলিশ বাহিনী এতোদিন মূলত রাস্তাঘাটে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের উপর ফ্রিস্টাইলে লাঠিচার্জ কিংবা গুলি ছুড়েছে। এবার তাদের সামনে সত্যিকারের চ্যালেঞ্জ। মুড়ি চানাচুর মাখিয়ে আপনি গ্যালারিতে বসতে পারেন। নিশ্চয়ই আমাদের গোয়েন্দারা ও মিডিয়া আমাদের সামনে তথ্য নিয়ে হাজির হবে। এই ফাঁকে আসুন যা ঘটল তার কিছু বিচার বিশ্লেষণ করি।

২. এই ব্যাংক লুটের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের ব্যাংকিং সেক্টরে নতুন মাইলফলক স্থাপিত হলো। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল। তারিখটি মনে রাখুন ২৬ জানুয়ারি ২০১৪; ঘটনাটি ঘটেছে সোনালী ব্যাংকে। আপনারা হয়তো মনে করতে পারবেন যে, গত আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে সোনালী ব্যাংক থেকেই হলমার্ক নামের একটি অখ্যাত প্রতিষ্ঠান ৪০০০ কোটি টাকা লোপাট করেছিল। তৎকালীন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সেই ঘটনাকে সোনালী ব্যাংকের মতো বড় ব্যাংকের জন্য সামান্য ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করেছিলেন। তবে জনগণ ও মিডিয়া সেই ঘটনাকে বাংলাদেশের ব্যাংকিং সেক্টরের রেকর্ড লুটপাট হিসেবে চিহ্নিত করেছিল।

৩. এবার লোপাট হয়েছে ১৬ কোটি ৯০ লাখ টাকা। এবারও ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ আর মন্ত্রী সেই আবুল মাল আবদুল মুহিত। মন্ত্রীর স্টেটমেন্ট এখনো পাওয়া যায়নি। তবে তার আগের স্টেটমেন্ট থেকে ধারণা করা যায় যে, তিনি এই সামান্য অর্থ নিয়ে কোন কথাই হয়তো বলবেন না। কিংবা বললেও তার স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে একে এক চিমটি লবণের সঙ্গে তুলনা করতে পারেন। বিশ্বের নামী দামী ব্যাংক লুটের ইতিহাসে এটা এক চিমটিই বটে।

৪. বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যাংক লুটের ঘটনাটি ঘটেছে সম্ভবত ইরাকে। ২০০৩ সালে আমেরিকার সেনাবাহিনী যখন ইরাক ধ্বংসে ব্যস্ত। সেইসময়ে ইরাকের সেন্ট্রাল ব্যাংক থেকে ১ বিলিয়ন ডলার লুট করা হয়েছিল। ২০০৭ সালে ইরাকের কারাদা শহরের দারুস সালাম ব্যাংক থেকে ৩০০ মিলিয়ন ডলার লুট করা হয়েছিল। তার প্রায় ২০ বছর আগে ১৯৮৭ সালে লন্ডনের রাজপরিবারের সেফ ডিপোজিট থেকে ১১১ মিলিয়ন ডলার লুট হয়েছিল। এভাবে সারা বিশ্বেই ব্যাংক লুটের ঘটনা ঘটছে। এক পরিসংখ্যান মতে, ২০১৩ সালে বিশ্বে ব্যাংক লুটের ঘটনা আগের বছরের চেয়ে বেশি ছিল।

৫. যারা ব্যাংক লুট নিয়ে সিনেমা দেখতে চান। তারা গুগলে সার্চ দিলেই অনেক সিনেমার নাম পাবেন। প্রতিবছরই ব্যাংক লুট নিয়ে সিনেমা তৈরি হয়। আমি ২০০৮ সালে নির্মিত দি ব্যাংক জব দেখেছি। ব্যাংক লুটপাটে রাজনীতি এই টাইপের একটি সিনেমা দেখতে হবে।

৬. অর্থমন্ত্রী কিংবা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কি বলবেন জানি না তবে সাধারণ মানুষ অবশ্য সোনালী ব্যাংকের টাকা লুটের ঘটনাকে আরো একটি রেকর্ড হিসেবে দেখতে চায়। কারণ যে টাকাটা লুট করা হয়েছে সেই টাকাটা নিয়মমাফিক ব্যাংকের ভল্টের সিন্দুক বা আলমিরাতে থাকার কথা হলেও তা ছিল না। প্রায় ১৭ কোটি টাকা সিন্দুকে না রেখে সোনালী ব্যাংক দ্বিতীয় রেকর্ডটি করল।

৭. লেখার শুরুতে বলেছি যে, আমাদের দেশের গোয়েন্দা ও পুলিশের জন্য সোনালী ব্যাংকের ঘটনা একটি চ্যালেঞ্জ। ঠিক একই ধরনের ঘটনা না হলেও বাংলাদেশে গত কয়েক বছরে অপরাধের বৈচিত্র্য বেড়েছে। যেমন, কল্পনা চাকমা অপহরণ, সাগর রুনি হত্যাকান্ড, ঐশীর মা-বাবা হত্যাকান্ড ইত্যাদি ঘটনাগুলোর পাশাপাশি হলমার্কের ৪০০০ কোটি টাকা লুট, স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপের ফ্যাক্টরিতে আগুন, হিন্দু বাড়িতে হামলা, বৌদ্ধ পল্লীতে ভাঙ্গচুর ইত্যাদি। এইসব ঘটনার কূল কিনারা করতে হলে শুধু লাঠি আর গুলি দিযে হবে না। বুদ্ধিবৃত্তিক চিন্তাভাবনার দরকার আছে।

৮. মানুষ প্রয়োজনে শেখে। সেটাই বড় আশাবাদ।

৯. বাংলাদেশে বেসরকারি গোয়েন্দা কর্মকান্ড বৃদ্ধির সুযোগ আছে। মেধাবী তরুণ-তরুণীরা এই দিকটি নিয়ে ভাববেন আশা করি।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s